Menu

অদ্ভুত রামায়ণ

অদ্ভুত রামায়ণ

কবি = অদ্ভুত আচার্য।

প্রকৃতি = অনুবাদ জাতীয়।

বিশেষ কথা = রামায়ণের সাতকাণ্ডের ভাবানুবাদ করেছিলেন কবি। ১৯১৩ খ্রিস্টাব্দে রজনীকান্ত চক্রবর্তীর সম্পাদনায় রংপুর সাহিত্য পরিষদ থেকে প্রকাশিত হয়।

বৈশিষ্ট্য

++ তাঁর কাব্য কৃত্তিবাসের কাব্য অপেক্ষা বৃহদায়তন।

++ পয়ার, ত্রিপদী ছন্দ ও আধুনিক শব্দের প্রচুর প্রয়োগে কাব্যটি উল্লেখযোগ্য। যেমন, রামের বনগমনে কৌশল্যার বিলাপ

“আমাকে ছাড়িয়া তুমি যাব দেশান্তরে।

শ্রীরামের মাও বলি কে ডাকিবে মোরে।।

++ স্বচ্ছন্দ বর্ণনার মধ্যে কবি কোনো কোনো ক্ষেত্রে সংস্কৃত অলংকারের সাহায্য নিয়েছেন। →রামের সীতা নির্বাসন সম্বন্ধে কবি অনেকটা লোকসাহিত্যের ধারা অনুসরণ করেছেন। যেমন—লৌকিক ছড়ার প্রয়োগে :

‘অশ্বত্থ কেটে বসত করি।

সতীন কেটে আলতা পরি’।

ত্রুটি = এই কাব্যে শব্দ সম্পদ, ছন্দ, অলংকার সন্নিবেশ প্রভৃতির সুষম ব্যবহার থাকলেও তা কৃত্তিবাসের ‘শ্রীরাম পাঁচালী’র সমকক্ষ নয়।

আরো পড়ুন--  গঙ্গারামের মহারাষ্ট্র পুরাণ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: সংরক্ষিত !!
close button